Loading...
You are here:  Home  >  অন্যান্য  >  অর্থনীতি  >  Current Article

ডি এ সমাচার

By   /  October 10, 2015  /  No Comments

কয়েকদিন আগের কথা। বকেয়া ডি এ নিয়ে উত্তাল ছিল রাজ্য রাজনীতি। তাই নিয়েই রম্যরচনা সব্যসাচী কুণ্ডুর।
আজ বিকেলে ভজনের দোকানে পৌঁছাতে খানিক দেরিই হয়ে গেলো । গিয়ে দেখি সবার এক রাউন্ড করে চা হয়ে গেছে । খালি গ্লাস গুলোর দিকে জুলু জুলু চোখে তাকিয়ে থেকে এক কোনে বসে পড়লাম । দেখি নন্দদা খুব মন দিয়ে আজকের পেপারটা পড়ছে । আর ওদিকে ফাল্গুনী চিকু আর রানা নিজেদের মধ্যে তর্ক করে যাচ্ছে । পড়াশোনার দিক থেকে ফাল্গুনী আমাদের দিক থেকে খানিক এগিয়ে । আজকাল রাত জেগেও পড়াশোনা করছে । এবারের টেটে পেলেও পেতে পারে ।আমাদের ভাগ্যে শিকে ছিঁড়বে বলে মনে হয় না । আজকের আলোচনার বিষয়!দিদি টেট আর ডিএ ।টেট পরীক্ষাটা পিছিয়ে যেতে ফাল্গুনীটা খুব ভেঙ্গে পড়েছিল । শেষে আমরা অনেক কষ্টে ওকে শান্ত করলাম । সেদিন থেকে দিদির ওপর রাগটা একটু বেশিই যেন বেড়ে গেছে । আজ দেখি ডিএ ডিএ করে ফাল্গুনী খুব হাল্লা করছে । ও চাইছে নন্দদা একটু গরম হোক তারপর জমবে খেলা ।

mamata netaji indoor

নন্দদা আবার দিদির বদনাম একদম সহ্য করতে পারেনা ।আর তর্কে নন্দদাকে হারানোটা ফাল্গুনীর অনেকদিনের বাসনা । কিন্তু এদিকে নন্দদা স্পিকটি নট , মন দিয়ে পেপারে যে কি পড়ছে এখান থেকে ঠিক বুঝতেও পারছিনা । আমার দিকে কেও নজরই দিচ্ছে না । আসার সময় ভাবলাম সবাই কে আজ আমার দুঃখের কথা বলব । কিন্তু কেউ পাত্তা দিলে তো । আজ দাদার কাছে তিনশো টাকা চাইলাম , বললাম , “ দাদারে তিনশো টাকা দিবি , ভোদাফোনের 3G রিচার্জ করবো ।” শুনে দাদা চোখ গোল্লা করে কোমরে হাত দিয়ে বলল , “টাকা কি গাছে ফলে যে তুই চাইবি আর টুক করে গাছ থেকে পেড়ে দিয়ে দেবো ।” শুনে আমার ভীষণ রাগ হোল , বললাম “ বা রে তোদের ১০% ডি এ বাড়ল , তা ছোট ভাইটিকে তিনশো টাকা দিতে পারবিনা ।” শুনে দাদা দাঁত কিড়মিড় করে মারতে এলো, আমিও কোনমতে পালিয়ে বাচলাম ।
ফাল্গুনীর বক্তব্য হল , এভাবে সরকারী চাকুরেদের বোকা বানিয়ে দিদির লাভটা কী হোলো । ওরা তো আর ভিক্ষে চাইছে না, নিজেদের বকেয়া ডি এ টা চাইছে। এই চার বছরে খটা খটি টাও অনেক বেড়ে গেছে কিন্তু বেতন বাড়ানোর সময়ই কাঁচকলা । বন্ধের দিনেও জোর করে কাজ করাচ্ছে । দিন দিন বকেয়া ডি এ বেড়েই চলেছে , ডি এ চাইলে বলে টাকা নেই কেন্দ্র সব টাকা কেটে নিচ্ছে । আর খেলা মেলা উৎসব করার টাকা আছে এমনকি ক্লাব গুলোকে ঘুস দেওয়ারো টাকা আছে । এটা সরকার চলছে না হিটলারের রাজত্ব চলছে । যা খুশি তাই, কোনও মানে হয়?
শুনে আমি ফাল্গুনীর গায়ে হাত বুলিয়ে ওকে সান্ত্বনা দিলাম । নন্দদা পেপারটা ভাঁজ করে টেবিলের ওপর রেখে চেয়ারে বেশ জুত করে বসে ফাল্গুনীর দিকে মিটিমিটি হেসে বলল , “ বাবা ফাল্গুনী তুই কি আমার দিদিমনিকে এতোটাই বোকা ভাবিস । উনি যেটা করেছেন খুব ভাবনা চিন্তা করে বুদ্ধি খাটিয়ে করেছেন ।” চিকু আর রানা দেখি দাঁত বের করে হাসছে আর আমার দিকে চোখের ইশারায় যেন বলছে , দেখ এবার কেমন জমে । ফাল্গুনী নন্দদার কথা শুনে বলল , “এতে আবার বুদ্ধিমানের কী হোল , সবাই জানে ২০১৬ তে বিধান সভা ভোট আর ক্লাব গুলোকে টাকা দিয়ে হাতে রাখতে হবে ।” নন্দদা বলল , “ বাঃ এইতো তুই খানিকটা বুঝেছিস বাকিটা আমি বোঝাচ্ছি ।

d a
ড়ি চা আর তেলেভাজার অর্ডার টা দে , ওই দেখ, গরম গরম বেগুনী গুলো কেমন আমাকে হাতছানি দিয়ে ডাকছে । আর ন্যপা তখন থেকে খালি ঠোঙ্গাটা শুঙ্গে চলেছে ।” শুনে আমিও খুশি হয়ে দাঁত বের করে হেসে ফেললাম ।
একটা গরম বেগুনীতে সযত্নে একটা কামড় দিয়ে নন্দদা বলল , “ এখন ডি এ টিএ বাড়িয়ে কি লাভ হোতো বলতো । ভোটের আগে আবার ডিএ চাই ডিএ চাই করে চিৎকার করত । কেন্দ্র ৬% ডিএ ঘোষণা করল বলেই দিদি কে বলতে হল যে আমাদের সরকার ১০% ডিএ দেবে । কিন্তু জানুয়ারি ২০১৬ থেকে । টিভি তে দেখলি না ঘোষণা শুনে সবাই কেমন দাঁত কেলিয়ে হাততালি দিচ্ছিল । দিদিমনি জানেন যে এরা ভোটের আগে ১০ % ডিএ হাতে পেয়ে গেলে আনন্দে আত্মহারা হয়ে ভোটটা ঠিক ওনাকেই দেবে । এখন কদিন একটু চিৎকার চেঁচামেচি করবে , পাড়ার ঠেকে কিম্বা অফিসে বসে গজগজ করবে , ফেসবুক আর হোয়াটসঅ্যপে কদিন দিদির গুষ্টির পিণ্ডি চটকাবে তারপর আবার ঠিক শান্ত হয়ে যাবে । এদের দৌড় তো দিদির জানা আছে না । এদের যে প্রতিবাদ করার কোন ক্ষমতা নেই সেটা দিদি ভালোভাবেই জানেন । না হোলে বন্ধের দিন সব সুড়সুড় করে অফিসে আসে হাজিরা খাতাই সই করতে । সবাই জানত যে দিদি যা যা ফতোয়া জারি করেছেন , আইনি লড়ায়ে তা টিকত না তবুও কেও প্রতিবাদ করেছে ? সূর্য বাবু কতো করে বললেন আমাদের বন্ধ সমর্থন করুন কিছু কাজ হোল ? আর দিদি এটাও জানেন যে ভোটের সময় এরাই ডিউটি করবে, দলের ছেলেরা যা যা বলবে ঘাড় হেলিয়ে তাতেই সায় দেবে আর ডিউটি শেষে বাড়িতে গিয়ে ফলাও করে নিজের বীরত্বের কথা বলবে । তাই দিদির এদের নিয়ে খুব একটা দুশ্চিন্তা নেই । আর ক্লাবে ক্লাবে টাকা দিয়ে যদি বেকার ছেলে গুলোকে হাতে রাখা যায় তাহলে ক্ষতি কি । ভোটের বাজারে আসল কাণ্ডারি তো এরাই । আর বেতনের কথা যদি বলিস তাহলে দেখেছিস তো এদের খরচ করার বহর । সারাক্ষণ শুধু শুধু নেই নেই নেই । মাসের শেষে এতগুলো টাকা একাউন্টে ঢুকছে আর আরেকদিকে বেরিয়েও যাচ্ছে । মিউচুয়েল ফান্ড , এল আই সি , হাউস লোন ইত্যাদি ইত্যাদি । তাই বলি, পিসিমনি সব দিক ভেবে চিন্তে কাজ করেছেন ।” এমন সময় চিকু বলে উঠলো , “এই তো সেদিন নান্তুর সাথে দেখা হোল । গল্প করতে করতে বরাটের মিষ্টির দোকানে ঢুকলাম । বেশ আয়েশ করে খেয়ে দেয়ে পঞ্চাশ টাকা বিল করে , হাত মুখ ধুয়ে দোকানের বাইরে এসে দাঁড়ালো । দাম দেওয়ার নাম নেই এদিকে স্কুলে চাকরি করে । শেষে আমার পকেট থেকে পঞ্চাশ টাকা খসল । কোন নীতিজ্ঞান নেই ।” রানা বলল , “ আরে বলিস না , আমার ছোট মামাও সরকারী চাকরি করে আবার মাঝে মাঝে কাগজে লেখালেখিও করে । মাঝে মধ্যে সরকারের বিরুদ্ধেও লেখে কিন্তু ছদ্মনামে । একবার আমি জিজ্ঞেস করেছিলাম , যে মামা তুমি ছদ্মনাম কেন ব্যবহার করো । বলে , আরে আমি সরকারী চাকরি করি , সরকারের বিরুদ্ধে লিখে যদি ধরা পড়ে যাই তাহলে কি হবে ভেবে দেখেছিস । আমি ভাবলাম ভালো রে , প্রতিবাদ করার যদি এতই ইচ্ছে তাহলে নিজের নামে লেখো ।” চিকু আর রানার কথা শুনে আমিও আমার দুঃখের কথাটা বলে ফেললাম । এবার দেখি ফাল্গুনীর মুখ থেকে আর কথা সয় না , খুব জব্দ হয়েছে । শুধু মাথাটা নাড়িয়ে বলল , “ দেখি এবার ভোটে তোমার দিদি জেতে কেমন করে ।” নন্দদা একটা অমায়িক হাসি হেসে বলল , “ জিতবে রে এবারো দিদিই জিতবে ।”
এই সময় আমার ফোনটা বেজে উঠলো , দেখি দাদার ফোন । “কি রে ন্যপা , এখনো আড্ডা মারছিস , বাড়ি কখন আসবি ?” আমি বললাম , “ না রে দাদা আড্ডা মারিনি , এই ঝন্টুদার সাথে এল আই সির একটা নতুন পলিসি নিয়ে আলোচনা করছিলাম , তোর ডিএ বাড়লে আর একটা এল আই সি করবি তো না কি ।” দাদা বেশ খুশি হয়ে বলল , “ এই শোন আসার পথে পল্টুর দোকান থেকে তোর রিচার্জটা করে নিস আমি টাকা দিয়ে দেবো ।”

………সমাপ্ত………

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five + one =

You might also like...

taxi

হাওড়া স্টেশন নিয়ে প্রশাসনের হেলদোল নেই

Read More →
game of thrones season 7 episode 1 game of thrones season 7 watch online game of thrones season 7 live streaming game of thrones season 7 episode 1 voot voot apk uc news vidmate download flipkart flipkart flipkart apk cartoon hd cartoonhd cartoon hd apk cartoon hd download 9Apps 9Apps apk