Loading...
You are here:  Home  >  কলকাতা  >  Current Article

পেলের ফ্রিকিক যেন অমরত্ব এনে দিয়েছিল শিবাজীকে

By   /  September 24, 2015  /  No Comments

মৌতান ঘোষাল

এই ২৪ সেপ্টেম্বর দিনটা গত তিন দশকে একবারও ভোলেননি শিবাজী ব্যানার্জি, এই দিনেই তো সেই ঐতিহাসিক ম্যাচে খেলতে নামা পেলের কসমস ক্লাবের বিরুদ্ধে। শুধু তিনি কেন, দলের কোনও সদস্যই ভুলতে পারবেন না তাঁদের জীবনের এই গুরুত্বপূর্ন দিনটা।
শিবাজী ব্যানার্জি কে ? যাঁরা নামটা শোনেনি, তাঁদের জন্য এই প্রশ্ন নয়। কিন্তু যাঁরা এই প্রাক্তন ফুটবলারকে চেনেন, তাঁদের কাছে শিবাজীর পরিচয়টা একটু অন্যরকম। সেখানে শিবাজীর সঙ্গে কোথাও একটা জড়িয়ে যায় ফুটবল সম্রাট পেলের নাম। গোলরক্ষক হিসাবে সেই সময় পেলের ফ্রিকিক বাঁচানোর দুর্লভ কৃতিত্বের অধিকারী কিন্তু একজনই, শিবাজী ব্যানার্জি। তিনি যেখানেই যান, তাঁর পরিচয় করাতে গিয়ে পেলের ফ্রি কিক বাঁচানোর কথাটাই উঠে আসে। ওই একটা সেভ যেন অমরত্ব দিয়ে গেছে রক্ষণের শেষ প্রহরীকে।

shibaji2

সেদিনের কথা জিজ্ঞেস করতেই নস্ট্যালজিক তিনি, আজও স্পষ্ট মনে আছে সব। “কলকাতায় আসার আগে চীন আর জাপানে ম্যাচে অসাধারন দুটো ফ্রিকিকে গোল করেছিলেন পেলে। টেলিভিশনে গোল দুটো দেখেছিলাম আমি। তারপর থেকেই প্রদীপ দা আমাকে নানা ভাবে ফ্রিকিক প্র্যাকটিস করাতে শুরু করেন। বিভিন্ন জায়গা থেকে। কখনও নিজে শুট করে, কখনও অন্য প্লেয়ারদের শটে। লক্ষ্য একটাই, ফ্রিকিক থেকে গোল করতে দেওয়া যাবে না ফুটবল সম্রাটকে”। বলছিলেন শিবাজী ব্যানার্জি। মনে আছে “সেদিন যখন কসমস ফ্রিকিক পেল, সবাই জানতো পেলেই নেবেন শট। সেদিন ইডেনে কিন্তু সবাই চাইছিল ফ্রিকিকে গোল করুন পেলে। কারণ সে’দিন মোহনবাগানের জয়ের থেকে বেশি, পেলের গোল দেখতেই মাঠে এসেছিলেন দর্শকরা।”

shibaji4

তাঁর বাবা সুবোধ ব্যানার্জিও ছিলেন নাম করা গোলরক্ষক। শিবাজীর আজও মনে আছে বাড়ি থেকে বেরোবার সময় বাবার দেওয়া উপদেশ- “ওরা ফ্রিকিক যদি পায় পেলেই শট নেবে। তুই কিন্তু বলের জন্য যাবি না, বলকে তোর কাছে আসতে দিবি”। কথাটা মাথায় ছিল তাঁর। “ওয়ালে দাঁড়িয়ে ৯ জন ফুটবলার, পেলে শট নিলেন, বল যেন হাওয়ায় কাঁপছে। সেই বিখ্যাত ব্যানানা কিক। বল যখন সেকেণ্ড পোস্ট দিয়ে গোলে ঢুকছে প্রথমে গ্রিপ করতে পারিনি, ছিটকে যায়, দ্বিতীয়বারে আবার ডাইভ দিয়ে বাচাই”। শিবাজী ব্যানার্জির স্মৃতিতে সবটা এতই পরিস্কার যেন কালকের ঘটনা। আজ ৩৮ বছর পর আবার কলকাতায় আসছেন ফুটবল সম্রাট, তাই এবার যেন আরও বেশি উজ্জ্বল আজকের দিনটা। সেদিন শুধু ফ্রিকি বাচানোই নয়, পেলের পা থেকে রীতিমত বল কেড়ে নিয়ে দলকে বাচিয়েছিলেন এই গোলরক্ষক। সে-কথাও মনে পড়ে স্পষ্ট, ” টনি ফিল্ডের বাড়ানো শট চেস্ট ট্র্যাপ করে গোল করতে যাবেন পেলে, ৪ ইঞ্চি দূর থেকে বল ছিনিয়ে নিই। উনি পা চালালে পাঁজরের হাড় ভাঙতো আমার। উনি লাফিয়ে এগিয়ে যান। ফেরার সময় মাথায় হাত দিয়ে বাহবা দেন।পরে রাতের পার্টিতে চূনী গোস্বামীকে বলেছিলেন এই ছেলেটি গর্ডন ব্যাঙ্কসের মত খেলে তোমাদের দলকে বাঁচিয়ে দিয়েছে”। বলছিলেন প্রাক্তন গোলরক্ষক। এই স্মৃতিগুলোই আজও বুকে আঁকড়ে ধরে আছেন শিবাজী ব্যানার্জি। আজও সযত্নে রেখে দিয়েছেন দশ বছর পর, ইতালি বিশ্বকাপের সময় জনৈক বাংলা সংবাদপত্রের সাংবাদিকের করা সাক্ষাতকারের পেপার কার্টিং, যেখানে দশ বছর পরেও তাঁকে মনে রাখার কথা বলেছিলেন পেলে।

shibaji3

ওই ম্যাচটা মোহনবাগানের জন্য একটা টার্নিং পয়েন্ট ছিল বলেই বিশ্বাস করেন বর্তমানে বাগান টেকনিক্যাল কমিটির সদস্য শিবাজী ব্যানার্জি, কারণ এরপরেই বাগানের ত্রিমুকুট জয়ের মতো ঘটনা ঘটে। আবার শহরে পা রাখবেন পেলে, কে জানে এবার আবার কোন ইতিহাস রচনা হবে, আর পাঁচটা বাঙালির মতো অপেক্ষায় সে’দিনের গর্ডন ব্যাঙ্কসও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

8 + seven =

You might also like...

land phone

এভাবে মজা করা ঠিক হয়নি

Read More →
game of thrones season 7 episode 1 game of thrones season 7 watch online game of thrones season 7 live streaming game of thrones season 7 episode 1 voot voot apk uc news vidmate download flipkart flipkart flipkart apk cartoon hd cartoonhd cartoon hd apk cartoon hd download 9Apps 9Apps apk