Loading...
You are here:  Home  >  খেলা  >  Current Article

ভারতীয় ক্রিকেটের ফার্স্ট গার্ল

By   /  March 8, 2017  /  No Comments

শ্রেয়সী তালুকদার

শান্তা রাঙ্গাস্বামী। এক সপ্তাহ আগে এই নামটা কজন জানতেন, তা নিয়ে বিতর্ক হতেই পারে। আজ অবশ্য মিডিয়ার কল্যাণে এটা একটা মোটামুটি চেনা নাম। বিসিসিআই এর লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড এর প্রথম মহিলা প্রাপক। হয়ে গেল অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে রবি শাস্ত্রী ঘোষণা করলেন ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট টিমের প্রথম ক্যাপ্টেন, অলরাউন্ডার শান্তা রাঙ্গাস্বামীর নাম।
তবে শুধু প্রথম টেস্ট ক্যাপ্টেন নন, সবদিক দিয়েই ভারতীয় ক্রিকেটের ফার্স্ট গার্ল। খেলা শুরু ১৯৭৩ সালে। খাতায় কলমে ভারতের মহিলা ক্রিকেট টিম প্রথম টেস্ট ম্যাচ খেলে ১৯৭৬ সালে। তবে তার আগে দুটো টুর্নামেন্টে নিজের জাত চিনিয়েছিলেন সান্তা। প্রথমে নিউজিল্যান্ড, তারপরে অস্ট্রেলিয়া। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাঁচ টেস্টের সিরিজে করেন ৫২৭ রান, যার মধ্যে ছিল একটি শতরান। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে তিনটি টেস্টে সংগ্রহ ২০৩ রান। তবে এই দুটোর কোনটাই ‘‌অফিসিয়াল’‌ তকমা পায়নি। তাই শান্তার কেরিয়ারে এই পরিসংখ্যান যোগও হয়নি।

santha rangaswamiতবে এতে দমে যাওয়ার পাত্রী শান্তা একেবারেই ছিলেন না। ১৯৭৬ সালের অফিসিয়াল প্রথম টেস্ট ম্যাচ খেলে ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট টিম, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে। আর সরকারিভাবে ভারতীয় ক্রিকেটের ফার্স্ট গার্ল হওয়ার জার্নিও শুরু শান্তা রাঙ্গাস্বামীর। প্রথম টেস্ট ক্যাপ্টেন, প্রথম টেস্ট বিজেতা ক্যাপ্টেন। এরপরে ভারতীয় মহিলা ক্রিকেটের প্রথম শতরানটাও আসে তাঁর ব্যাট থেকেই, পরবর্তী নিউজিল্যান্ড সফরে।
সাত বোনের মধ্যে ইঞ্জিনিয়ার, পিএইচডি ইত্যাদির পাশাপাশি একজন ক্রিকেটার। আজও মহিলা ক্রিকেটারদের যেভাবে লড়াই করতে হয়, সেই সময়ে লড়াইটা আরও অনেক কঠিন ছিল। বাবাকে ছোটবেলায় হারালেও শান্তা অবশ্য লড়াইয়ে পাশে পেয়েছিলেন মা’কে। ১৯৭৩ সালে একটি সিরিজে স্কুটি জিতে নেন ভাল পারফরম্যান্সের দৌলতে। তার আগে দশ কিলোমিটার হাঁটা ও বাস- এই ছিল প্র্যাকটিসে যাওয়ার উপায়। অ্যাওয়ার্ড নিতে এসে জানালেন, কীভাবে কখনও কেরিয়ারে যথাযথ ‘পেইড’ ক্রিকেটার ছিলেন না কোনদিন। কন্ট্র্যাক্ট কী জিনিস জানতেন না তখনকার মহিলা ক্রিকেটাররা। তবু খেলে গেছেন, শুধু খেলতে চেয়েছেন বলে। সেটার স্বাদ অবশ্য ঝুলন, মিতালিরাও ২০১৫ সালের আগে পাননি!
ভারতের হয়ে ১৬টি টেস্ট ম্যাচ খেলে রান ৭৫০। ১৬টির মধ্যে ১২টিতেই টিমের নেতৃত্ব দিয়েছেন শান্তা রাঙ্গাস্বামী। মহিলা ক্রিকেটে আন্তর্জাতিক ম্যাচের সংখ্যা বাড়ানোর দাবি প্রায়ই ওঠে। শুরুতে এই দাবি জানানোর একটা সঠিক জায়গাও ছিল না। ১৯৮৬ থেকে ১৯৯১- এই ছয় বছর টানা কোনও আন্তর্জাতিক সফর হয়নি। বলা বাহুল্য, সান্তা রাঙ্গাস্বামীর কেরিয়ারে আরও কিছু পালক যোগ হওয়ার সুযোগটাই আসেনি ঠিকঠাক। ১৯৯১ সালে শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলে ক্রিকেটে অবসর ঘোষণা করেন সান্তা। ততদিনে অবশ্য ভারতীয় মহিলা ক্রিকেটের প্রথম ছক্কাটিও এসে গেছে তাঁর ব্যাট থেকে।
১৯৭৬ সালে প্রথম ভারতীয় মহিলা ক্রিকেটার হিসেবে ‘অর্জুন’ পুরস্কারটিও আসে শান্তা রাঙ্গাস্বামীর ঝুলিতে। তিনি ফার্স্ট। কিন্তু ফার্স্ট মানে তো সবে শুরু! অনেকটা পথ চলা বাকি। আর তাই, ‘আই ডিমান্ড মোর’- ভারতীয় ক্রিকেটের ফার্স্ট গার্লের দাবি। পথটা দেখিয়ে দিয়েছেন। ভারতীয় মহিলা ক্রিকেটে রাস্তা মসৃণ না হলেও সেই পথে হেঁটেছেন তিনি। এখন শুধু ফার্স্ট গার্লের দাবিটুকু পূরণের লড়াই ও প্রতীক্ষা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

10 + seventeen =

You might also like...

shimultala2

শীতের ছোট্ট ছুটিতে শিমূলতলা

Read More →
game of thrones season 7 episode 1 game of thrones season 7 watch online game of thrones season 7 live streaming game of thrones season 7 episode 1 voot voot apk uc news vidmate download flipkart flipkart flipkart apk cartoon hd cartoonhd cartoon hd apk cartoon hd download 9Apps 9Apps apk