Loading...
You are here:  Home  >  কলকাতা  >  Current Article

শুধু কোচ নন, বাবার মতো ছিলেনঃ কুন্তলা

By   /  July 18, 2015  /  No Comments

মৌতান ঘোষাল

প্রবাদপ্রতীম কোচ  সুশীল  ভট্টাচার্যর মৃত্যুতে  যতটা  শোকোস্তব্ধ  ময়দান  ঠিক  ততটাই  স্মৃতিমেদুরও।  আসলে তিনি  যে ছিলেন  ফুটবলার  তৈরির  কারিগর। সেই পাঁচের দশক থেকে শুরু। সুকুমার সমাজপতি থেকে গৌতম সরকার, সুভাষ ভৌমিক থেকে প্রশান্ত ব্যানার্জি। অনেকের উঠে আসার পেছনে বড় ভূমিকা ছিল এই মানুষটার। পরের দিকেও থেমে থাকেনি ফুটবলার খোঁজার এই নেশা। অতনু ভট্টাচার্য, কৃশানু দে থেকে  শুরু করে  অভিজিৎ মন্ডল, একের পর এক  সফল ফুটবলার কলকাতা  ফুটবলকে  উপহার  দিয়েছেন  তিনি।  এই সাফল্যের  পাশাপাশি তার  বিশাল  অবদান  এই রাজ্যের  মহিলা  ফুটবলেও। কার্যত তাঁর  হাত ধরে চলা  শুরু  বাংলার মহিলা ফুটবলের। আজ তাই বারবার  সেই প্রথম দিনগুলির কথা মনে  পড়ছে  রাজ্যের জনপ্রিয় মহিলা ফুটবলার এবং কোচ কুন্তলা  ঘোষদস্তিদারের।

sushil bhattacharya

১৯৭৫ সালে  যখন প্রথম  শুরু  মহিলা ফুটবল, সেই প্রথম  দলের  মধ্যেই  ছিলেন, শান্তি মল্লিক, কুন্তলা ঘোষদস্তিদাররা। কুন্তলার  আজও মনে পড়ে, “যখন খেলতে  এলাম, তখন  ঠিক করে জার্সি প্যান্ট পরতে জানতাম না।  ঠিকভাবে  বুটের  ফিতে পর্যন্ত বাঁধতে পারতাম না। সবটাই হাতে ধরে শিখিয়েছিলেন সুশীল স্যার। ওনার স্থান তাই বাবার  মতোই।” এদিন সকালে মৃত্যুসংবাদ পেয়েই আবার  ছুটে যান হাসপাতালে। তাঁর বিশ্বাসটাই আত্মবিশ্বাস হয়ে উঠেছিল কুন্তলাদের, “ উনি বিশ্বাস করতেন মেয়েরাও ফুটবল খেলতে পারে, আর সেটা উনি করিয়ে দেখিয়েও ছিলেন। উনিই তো সব প্রতিবন্ধকতা পেরিয়ে আমাদের  তৈরি করেছিলেন। আর পাখির চোখ ছিল ওঁর। প্রথমে প্রায় দেড়শো মেয়ে  ট্রায়ালে এসেছিল। তার মধ্যে থেকে পনের-ষোলজনকে বেছে নেওয়া তো সহজ ছিল না। অথচ যে ক’জনকে উনি বেছে নিয়েছিলেন তারা  প্রত্যেকেই প্রতিষ্ঠিত। আজও তাদের নাম জানেন সবাই।”

kuntala ghosh dastidar

স্মৃতির সরণি বেয়ে হেঁটে চলেছিলেন কুন্তলা,  “আমরা তো  মাঠে ঘাটে খেলে বেড়াতাম, পজিশন কী বিষয় কিছুই জানতাম না। সেইসব বোর্ডে এঁকে  বুঝিয়ে দেওয়া সব উনি করেছেন। এমনকি জাতীয় দলের হয়ে যখন খেলতে গেছি, সবাইকেই ম্যান টু ম্যান  মার্কিং  কীভাবে ভাঙতে হবে তাও উনি বলে দেন”।  শুধু খেলোয়াড় হিসাবে নয়, পরবর্তীকালে  কোচিং করানোর সময়ও সুশীল ভট্টাচার্য ছিলেন কুন্তলার শিক্ষাগুরু। প্রথম কোচিং করানোর আগেও ওঁর কাছে  গিয়েছিলেন কুন্তলা। সেই স্মৃতিও স্পষ্ট এখনও, “ গিয়ে বললাম, সুশীলদা, আমি কোচিং ডিগ্রি পাশ করে কোচ হয়েছি। তখন উনি আমাকে চার পাঁচটা প্রশ্ন করলেন, কীভাবে সিলেকশন করবো, পরীক্ষা নিলেন। উত্তর শুনে বললেন, হ্যাঁ, এবার তুই কোচিংটা করাতে পারবি। আজ আধুনিক কোচেদের  সঙ্গে  যখন কাজ করি  বুঝতে পারি  কত গভীর ছিল ওঁর ভাবনা। কত এগিয়েছিলেন উনি। আমাকে  বিশ্বাস জুগিয়েছিলেন। এত শিখেছি ওঁর কাছে! যখন  দরকার, ওঁর কাছে গেছি, এত শিখেছি আমি যে তার হিসাব নেই। তাঁর মৃত্যুটা অনেক বড় ক্ষতি হল। আমি তো অন্ততঃ প্রতি মুহুর্তে ওঁর অভাববোধ করব”।  কুন্তলার  এই  আক্ষেপের  অনুরণনই এখন গোটা  ময়দান জুড়ে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × one =

You might also like...

radio3

না বোঝা সেই মহালয়া

Read More →
game of thrones season 7 episode 1 game of thrones season 7 watch online game of thrones season 7 live streaming game of thrones season 7 episode 1 voot voot apk uc news vidmate download flipkart flipkart flipkart apk cartoon hd cartoonhd cartoon hd apk cartoon hd download 9Apps 9Apps apk