Loading...
You are here:  Home  >  ওপেন ফোরাম  >  Current Article

কবির ওপর ফতোয়া ও আমাদের হীরণ্ময় নীরবতা

By   /  March 22, 2017  /  No Comments

কৃতিষ্ণু সান্যাল

একটি কবিতা পছন্দ হয়নি বলে পুলিশে নালিশ করা হয়েছে। প্রবণতাটি বিপজ্জনক। এর বিরুদ্ধে আন্তরিক প্রতিবাদ একমাত্র আশু কর্তব্য।

যথারীতি অন্য কথা তুলে মূল প্রসঙ্গ থেকে নজর ঘোরানোরও চেষ্টা চলছে। কবির আসল উদ্দেশ্য কি আত্মপ্রচার? কবি কি নরম মাটিতেই আঁচড় কাটতে সিদ্ধহস্ত? কবি কি বিশেষ কেউ বা কিছুর প্রসাদভাজন হয়ে বা হতে চেয়ে এ কাজ করছেন? কিছু কিছু ক্ষেত্রে কবির আপেক্ষিক নীরবতার কারণও বলা বাহুল্য একেকজন একেকভাবে ব্যাখ্যা করছেন।
ওপরের প্রত্যেকটি বিষয়ে নিয়ে ইচ্ছেমত মত পোষণ ও দানের স্বাধীনতা সকলের আছে। তাতে মূল প্রসঙ্গটা পাল্টে যায় না। যা আমার পছন্দ হবে না আমি সেটাই রোধ করে দিতে চাইব এটা অসভ্যতা। অরুচিকর। গণতন্ত্রের পক্ষে অস্বাস্থ্যকর। ভারতীয় সংস্কৃতির পক্ষে বেমানান। আমাদের বাংলার সংস্কৃতির সাপেক্ষে আরও ন্যক্কারজনক। কারণ আধুনিক গণতন্ত্রের হাওয়া এই উপমহাদেশে প্রথম এখান থেকেই বইতে শুরু করেছিল।

srijato4আমাদের চারপাশে এরকম ঘটনা এই প্রথম হল না। একটি বই অনুভূতিতে আঘাত করছে এই অজুহাতে এর আগে তাণ্ডব হয়ে গেছে। আমাদের দেশে একটা ইতিহাসের বই বাজার থেকে তুলে নেওয়া হয়েছে। আমাদের রাজ্যে একজন লেখিকাকে পরিত্যাজ্য করা হয়েছে। এসবের বিরুদ্ধে আন্তরিক প্রতিবাদ একমাত্র আশু কর্তব্য ছিল। আমরা আমাদের কর্তব্য পালন করিনি।

আমরা অনেকে মনে মনে গেরুয়া/সবুজ সন্ত্রাসকে ভালোবেসে চুপ করেছিলাম। দায় এড়ানোর মত দু চারটে হালকা মন্তব্য করে কাজ সেরে দিয়েছি এবং যথাক্রমে সবুজ/গেরুয়া সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে রে রে করে ঝাঁপিয়ে বাজার গরম করবার চেষ্টা করেছি কারণ সেটা আমাদের “ওরা তো ওরকমই” বলার নোংরা ঘিনঘিনে তৃপ্তি দিয়েছে। আমরা অপরাধ করেছি। আমরা অনেকে বিভিন্ন হিসেব নিকেশ করে দেখেছিলাম বিশেষ একধরনের সন্ত্রাস সম্পর্কে একরকমের হিরণ্ময় নীরবতা বজায় রাখাটাই আমাদের পক্ষে লাভজনক। আমরা লাভ করতে চেয়েছি।আমরা দ্বিচারিতা করেছি। এইসব করতে গিয়ে আমাদের খুব বড় কয়েকটা ক্ষতি হয়ে গেছে। আমরা লোভী হয়ে গেছি। আমাদের মেরুদণ্ড নরম হয়ে গেছে। আমাদের বিশ্বাসযোগ্যতা কমে গেছে। আমরা প্রতিবাদের আগে দেখে নিচ্ছি কী করলে লাভ বেশি। আমরা প্রতিবাদে আগের থেকে বেশি ভয় পাচ্ছি। আমরা প্রতিবাদের ডাক দিলে সঙ্গত কারণেই পাল্টা প্রশ্ন আসছে – তখন যে তুমি…? প্রশ্নকর্তাদের তালিকায় কিন্তু স্রেফ কোন একটা বা দুটো রঙের সন্ত্রাসের সমর্থকরাই নেই। অনেক আন্তরিক ভাবেই সন্ত্রাসবিরোধী মানুষ যারা তাদের পূর্বতন সংগ্রামের সময় আমাদের পাশে পেতে চেয়েও পাননি তারাও আছেন। দেরি হয়ে যাচ্ছে। তাদের পাশে গিয়ে দাঁড়াবার পালা দ্রুত ক্ষয়ে আসছে।

ভিন্নমতের গোড়া মেরে দাও – অত্যন্ত বৃহৎ সর্বনাশের সূচনা। মার্টিন নাইমোলারের যে অতিবিখ্যাত অথচ অনেকক্ষেত্রেই প্রাপ্য গুরুত্ব বঞ্চিত কবিতাটি আমরা জানি সেটা মনে করুন। বহিরাগত রাজপুত্র গিয়ে সাহিত্যের তাসের দেশে বসন্ত আনতে পারে কিন্তু আপনার বাস্তব দেশটা যাতে একটা মৃতের দেশ না হয়ে যায় সেটা দেখা আপনার দায়িত্ব। প্রতিবাদ করুন। সন্ত্রাসের রং, দল, মত, ধর্ম, আদর্শ সব কিছুই হয়। সব ধরনের সন্ত্রাসের প্রতিবাদ করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

6 − three =

You might also like...

amstrong3

চাঁদে কি সত্যিই মানুষ গিয়েছিলেন ?

Read More →
game of thrones season 7 episode 1 game of thrones season 7 watch online game of thrones season 7 live streaming game of thrones season 7 episode 1 voot voot apk uc news vidmate download flipkart flipkart flipkart apk cartoon hd cartoonhd cartoon hd apk cartoon hd download 9Apps 9Apps apk