Loading...
You are here:  Home  >  কলকাতা  >  Current Article

নিজস্বীতে দিব্যি মজে আছে দুই প্রধান

By   /  April 3, 2017  /  No Comments

শান্তনু ব্যানার্জি

চলমান আই লিগে ফিরতি ডার্বির আসর বসতে চলেছে শিলিগুড়ির কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামে। আগামী ৯ এপ্রিল চির প্রতিদ্বন্দ্বী ইস্টবেঙ্গল আর মোহনবাগান মুখোমুখি হবে। চলতি আই লিগের প্রথম ডার্বি ম্যাচ গোলশূন্যতে ড্র হয়েছিল। আর ফিরতি ডার্বি ম্যাচে বল গড়াতে যাচ্ছে এমন একটা সময় যখন দুই চির প্রতিদ্বন্দ্বী খেতাব লড়াই এর দৌড়ে রয়েছে। লিগ টেবিলে চোখ বোলালে দেখা যাবে ইস্টবেঙ্গল ১৪ ম্যাচে ২৭ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। আর মোহনবাগান লাল হলুদ বিগ্রেডের থেকে এক ম্যাচ কম খেলে ২৬ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে থেকে চির প্রতিদ্বন্দ্বীকে রণহুংকার দিয়ে চলেছে।
কিন্তু এতো গেল স্ট্যাটিস্টিক। ‘আবেগ’ পরিসংখ্যান, যুক্তি-তর্কের ধার ধারে না! আবেগ চায় জেতাতে, আর নিজে জিততে। আর তাই ইস্ট-মোহন দুই দলের সমর্থকেরাই প্রতিদিন প্রিয় দলের ফুটবলারদের তাতানোর জন্য হাজির হয়ে পড়ে প্র‌্যাকটিস গ্রাউন্ডে। রোজকার অনুশীলন শেষে প্রিয় দলের ফুটবলারদের সঙ্গে জমিয়ে সেলফিতে মজে ওঠে দুই দলের সমর্থকেরা। বয়স আর বাধ মানে না। আট থেকে আশি ছেলে মেয়েরা, এমনকি ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তিরাও ঝাঁপিয়ে পড়ে প্রিয় দলের ফুটবলারদের হাতের কাছে পেয়ে। যেন হাতে চাঁদ পেয়ে গেলাম! লাল হলুদের মহম্মদ রফিক, জ্যাকিচাদ সিং, মেহেতাব হোসেন, ওয়েডসন, উইলিস প্লাজা, ক্রিস পেইন, ইভান বুকেনিয়া, বিকাশ জাইরু, শুভাশিস রায় চৌধুরী ‘নিজস্বীর’ আবদার নিজেরাও মজে ওঠেন। বাদ যায় না নারায়ন দাশ, কেভিন লোবো, রবিন সিং সহ গোটা রেন্ড এ্যান্ড গোল্ড পরিবার। এমনকী ‘ভালবাসার অত্যাচারে’ নিজস্বীতে ধরা পড়ে যান ইস্টবেঙ্গলের কোচ ট্রেভর জেমস মর্গ্যান।

selfie
এই চিত্র যদি এক টাকা কয়েনের এক পিঠের ছবি হয়ে ওঠে, তাহলে কয়েনের অপর পিঠের চিত্রও একই ফ্রেমে ধরা পড়ে থাকে প্রতিদিনের অনুশীলন শেষে। বাগানের সোনি নর্দে, কাতসুমি উষার জনপ্রিয়তা নিজস্বীর আবদারে হয়ে ওঠে বাঁধনছাড়া উৎসবে। বাদ পড়ে না এদুয়ার্দো, কিন লুইস, প্রবীর দাস, আজহারউদ্দিন মল্লিক, শুভাশিস বসু, শিল্টন পাল, শেহেনাজেরা। সবুজ মেরুনের ‘সেভজিৎ’ দেবজিৎ মজুমদারের সঙ্গে সেলফিতে ধরা দেওয়ার জন্য রীতিমতো অঘোষিত টুর্নামেন্ট শুরু হয়ে যায় মেরিনার্স সমর্থকদের মধ্যে। মোহনবাগান কোচ সঞ্জয় সেন সাংবাদিকদের প্রশ্নবান সামলে নিয়ে গাড়িতে ওঠার মুখে আবেগের কাছে সম্পূর্নভাবে নিজস্বীতে ধরা পড়ে যান। নিজস্বীর সঙ্গেই চলতে থাকে দুই চির প্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাব দলের সমর্থকদের ফুটবলারদের কাছে আই লিগ চ্যাম্পিয়ন হয়ে ওঠার সুতীব্র বাসনার ইছে প্রকাশ। “ডার্বি জিততেই হবে, আই লিগ চ্যাম্পিয়ন হতেই হবে”। আর আই লিগ শিরোপা অর্জন করতে হবে অবশ্যই চির প্রতিদ্বন্দ্বীদের মহাডার্বিতে বধ করে।
আর আবেগ দুই দলের সমর্থকদের মধ্যে এতটাই গাঢ়ভাবে ফুটে ওঠে অনেক সময় তা হয়েও ওঠে ফুটবলারদের কাছে রীতিমতো চ্যালেঞ্জিং। ভালবাসার চরম পরশে দুই দলের ফুটবলারেরা ম্যাচের চেনা ছন্দের মতোই সেলফির আবদারকে ‘ড্রিবল’ করে চটপট গাড়িতে উঠে পড়েন! বাঙালি এবং তার ফুটবল এভাবেই সরণির স্রোতে গা ভাসিয়ে তরতর করে এগিয়ে চলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × five =

You might also like...

mukul roy2

সবুজ সংকেত?‌ মুকুলকে এত বোকা মনে হয়!‌

Read More →
game of thrones season 7 episode 1 game of thrones season 7 watch online game of thrones season 7 live streaming game of thrones season 7 episode 1 voot voot apk uc news vidmate download flipkart flipkart flipkart apk cartoon hd cartoonhd cartoon hd apk cartoon hd download 9Apps 9Apps apk