Loading...
You are here:  Home  >  ওপেন ফোরাম  >  Current Article

মোহনবাগানকে সমর্থন?‌ অসম্ভব

By   /  April 19, 2017  /  No Comments

রাহুল বিশ্বাস

২০০২ সালের কথা মনে পড়ছে, মোহনবাগান যেবার শেষ জাতীয় লিগ জিতল।

আমার বাড়ি ঘটি পাড়ায়। গোটা এলাকায় আমরা মাত্র তিনটে পরিবার বাঙাল। লিগ জেতার পর মোহনবাগান সমর্থকদের প্রথম কাজ হয়েছিল, আমাদের বাড়ির সামনে দুমদাম পটকা ফাটানো। দিনটা বোধহয় বাংলা নববর্ষ ছিল। আমাদের বাড়িতে বেশ কিছু আত্মীয়স্বজন এসেছে। হঠাৎ দেখি পাড়ার ক্লাবের ছেলেরা হে হে করে উৎকট চিৎকার করতে করতে আমাদের বাড়ির দিকে ছুটে আসছে। প্রথমে তো সবাই ভয়ই পেয়ে গিয়েছিলাম। তারপর শুনলাম মোহনবাগান জাতীয় লিগ জিতেছে। তারপর শুরু হল সারারাত আমাদের বাড়ির সামনে চকলেট বোম ফাটানো, আবির মাখা, পতাকা উড়িয়ে নাচ। শুধু সেইদিন নয়, দিন তিনেক পরে বিজয় উৎসবের পিকনিকটাও আমাদের বাড়ির সামনেই হয়েছিল, যদিও আমাদের বাড়ি থেকে ক্লাবটা বেশ কিছুটা দূরে।

আমি জানি, এবার যদি ওরা লিগ জেতে, একই কাণ্ড করবে। আমাদের সূর্য মেরুন গানটা বাজানোর সময় মাইকের মুখগুলো আমাদের বাড়ির দিকেই ঘুরিয়ে দেবে। তারপর সারা সপ্তাহ ধরে দোকানে বাজারে আওাজ দেওয়া তো আছেই।

east bengal supporters

সেই সময় তো ওদের মনে পড়বে না, বাংলার ফুটবলের স্বার্থে মোহনবাগান ইস্টবেঙ্গল সবার এক হওয়া উচিত। তখন তো ওরা বলবে না, ভাই তোরাও আমাদের সমর্থন করেছিলিস, তার জন্য ধন্যবাদ। বলবে না। বরং বলবে, তোরা এবার বাংলাদেশের জাতীয় লিগ খেল।

বাংলার রাজীতিতে একটা কালচার তৈরি হয়েছে। সিপিএম বা বিজেপি বা কংগ্রেসের হয়ে জেতা কাউন্সিলাররা বলছেন, উন্নয়নের কর্মযজ্ঞে সামিল হতে তৃণমূলে যোগ দিলাম। উন্নয়নের যজ্ঞেই যদি সামিল হবি, তাহলে সিপিএম বা বিজেপি বা কংগ্রেসের হয়ে লড়েছিলি কোন দুঃখে! তৃণমূলের হয়ে লড়লেই পারতিস। ইস্টবেঙ্গলের অনেক সমর্থকই দেখছি ‘বাংলার স্বার্থে’ মোহনবাগানকে সমর্থন করছে। এই আদিখ্যেতা দেখে খুব রাগ হচ্ছে। নিজের ছেলে থার্ড হবে কিনা ঠিক নেই, পাশের বাড়ির ছেলে ফার্স্ট হচ্ছে দেখে মিষ্টি বিলি! আমি বাপু এই ভন্ডামি করতে পারব না।

আর ‘বাংলার স্বার্থে’র প্রশ্ন উঠছে কোথা থেকে? ওরা তো কথায় কথায় বলে আমরা নাকি ভারতীয় নই। কিন্তু আমরা তো জানি আমরা ভারতীয়। তাই আমাদের কাছে বাংলাও যা আইজল এফসি–‌ও তাই। আমরা আইজলকেই সাপোর্ট করব। পাহাড়ি এই দলটা জিতলে আমাদের কোনও লাভ নেই, কিন্তু আমাদের বাড়ির সামনে পটকা ফাটানো তো বন্ধ হবে। উৎসবের নামে উৎকট গান বাজানো তো বন্ধ হবে।

শুধু আমার বাড়ির সামনে কেন, লিগ জেতার খবর পেয়ে ঢাউস ঢাউস পতাকা নিয়ে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের সামনেই মিছিল করবে। ওদের ক্লাবটা বড় রাস্তার উপরে বলে, আর উল্টোদিকে সি এ বি ক্লাব হাউস বলে আমরা জিতলে ওখানে ঠিক মতো ফুর্তি করতে পারি না। কিন্তু আমাদের ক্লাবটা গলির ভিতরে, ওরা জিতলে প্রথম নাচানাচিটা আমাদের ক্লাবের সামনেই করবে। যারা মাচাদের সমর্থন করার কথা ভাবছেন, তাঁরা সেই দৃশ্য সহ্য করতে পারবেন তো ?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twenty − 5 =

You might also like...

land phone

এভাবে মজা করা ঠিক হয়নি

Read More →
game of thrones season 7 episode 1 game of thrones season 7 watch online game of thrones season 7 live streaming game of thrones season 7 episode 1 voot voot apk uc news vidmate download flipkart flipkart flipkart apk cartoon hd cartoonhd cartoon hd apk cartoon hd download 9Apps 9Apps apk