Loading...
You are here:  Home  >  ওপেন ফোরাম  >  Current Article

দয়া করে এদের মৃত্যুদণ্ড দেবেন না

By   /  May 7, 2017  /  No Comments

ফাঁসি মানেই তো মুক্তি। তাই ফাঁসি নয়, সব ধর্ষকদের জন্য আলাদা চিড়িয়াখানা করা হোক। শিশুদের শিক্ষামূলক ভ্রমণে নিয়ে যাওয়া হোক সেই চিড়িয়াখানায়। শিশুরা বুঝুক ধর্ষণের শাস্তি কী?‌ লিখেছেন বর্ণালী জানা।

প্রাচীন ভারতে, যখন কোনও অত্যাচারী রাজার পতন ঘটত, তখন তাঁকে কেমন শাস্তি দেওয়া হত তার একটা নমুনা দেওয়া আছে, শরদিন্দু
বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিষকন্যা গল্পে। প্রজাপীড়ক রাজাকে, হাত পা কেটে, নগরীর সিংদুয়ারের কাছে বেঁধে রাখা হত।
তার সামনে রাখা হত একটি জলের পাত্র। যে প্রজাদের একদিন সে অত্যাচার করেছে, তাদের কাছেই প্রার্থনা জানাতে হত এক বিন্দু জলের জন্য। মৃত্যুর থেকেও ভয়াবহ সেই শাস্তি। প্রতিদিন অন্যের অপমান সহ্য করে, অন্যের দয়ার মুখাপেক্ষী হয়ে বেঁচে থাকা।
নির্ভয়া কাণ্ডের চার ধর্ষককে ফাঁসির আদেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। কিন্তু ফাঁসি মানে তো তাদের মুক্তি দিয়ে দেওয়া। কারণ এরপরেও তারা রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আবেদন জানাবে, মানবাধিকার সংগঠনগুলি ন্যাকা কান্না কাঁদবে। প্রচুর ধানাই–‌পানাইয়ের পরে তাদের ফাঁসি হবে বেশ কয়েক বছর পরে। ততদিন তারা নাগরিকদের করের টাকায় দিব্যি বেঁচেবর্তে থাকবে।

nirbhaya
কিন্তু এদের কি অধিকার আছে, আমাদের করের টাকা ধ্বংস করে, কয়েক মিনিটের মধ্যে টুক করে মরে যাবার? স্মরণ করুন এরা নির্ভয়ার সঙ্গে কী কী করেছিল। শুধু তো ধর্ষণ নয়, শুধু তো রড ঢুকিয়ে দেওয়া নয়, তারপরেও যতদিন বেঁচে ছিল ততদিনের অসহ্য, আক্ষরিক অর্থেই যন্ত্রণা, যদি বেঁচে যেত তাহলেও সারাজীবনের জন্য শারীরিক যন্ত্রণা, এবং সামাজিক অপমান, শুধু নির্ভয়ার নয়, গোটা পরিবারের অপমান… এই সব কিছুই তো তিলে তিলে ফিরিয়ে দিতে হবে ওই মহাপুরুষদের।
তাই এদের মৃত্যুদণ্ড না দিয়ে, যে স্থানে এই কুকর্ম করেছিল সেখানেই খাঁচায় পুরে রাখা হোক। উলঙ্গ অবস্থায়, প্রকাশ্যে। সামনে বোর্ড ঝুলিয়ে জানানো হোক তার কীর্তির কথা। জানানো হোক তার নাম, ঠিকানা। যে লজ্জা ওরা নারীকে দিতে চেয়েছিল, সেই লজ্জা ফিরিয়ে দেওয়া হোক। ওদের মলমূত্র ত্যাগ, হস্তমৈথুন যা কিছু করার সব করুক সহস্র চোখের সামনে। অসংখ্য নারীর চোখের সামনে।

দেশের সব ধর্ষককেই এই শাস্তি দেওয়া হোক। দেখে সম্ভাব্য ধর্ষকরা শিক্ষা পাক। দেশে ধর্ষকের অভাব নেই। তাদের একত্রে রেখে একটি চিড়িয়াখানাও করা যেতে পারে। সেখানে প্রয়োজনে স্কুলের বাচ্চাদের জন্য শিক্ষামূলক ভ্রমণের ব্যবস্থা করা হোক। দেখবেন শিশু মনে গেঁথে যাবে, কোনওদিন মেয়েদের অপমান না করার মন্ত্র।

নির্ভয়ার মা জানিয়েছেন, তার মেয়ে মৃত্যুর আগে জল খেতে চেয়েছিল। কিন্তু শরীরে এত নল যে সামান্য জলটুকুও খাওয়ানো যায়নি। এদের কিন্তু জল খেতে দেওয়া হবে। তবে জল দেওয়ার অধিকার থাকবে শুধু মেয়েদের। মেয়েদের কৃপাপ্রার্থী হয়ে ওরা বেঁচে থাকুক।

এই বেঁচে থাকা হবে মৃত্যুর থেকেও ভয়ঙ্কর। তখন ওরা রাষ্ট্রপতির কাছে, প্রাণভিক্ষা নয়, মৃত্যুভিক্ষার আবেদন জানাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fifteen − eight =

You might also like...

national flag

একটি তারিখের আড়ালে

Read More →
game of thrones season 7 episode 1 game of thrones season 7 watch online game of thrones season 7 live streaming game of thrones season 7 episode 1 voot voot apk uc news vidmate download flipkart flipkart flipkart apk cartoon hd cartoonhd cartoon hd apk cartoon hd download 9Apps 9Apps apk