Loading...
You are here:  Home  >  ওপেন ফোরাম  >  Current Article

ঋতব্রত এবং সিপিএম প্রসঙ্গে

By   /  June 4, 2017  /  No Comments

(‌ঋতব্রতর শাস্তি সম্পর্কে চায়ের দোকান থেকে সোশাল মিডিয়া–‌নানা জায়গায় নানা আলোচনা। বামেরা যেমন দ্বিধাবিভক্ত, তেমনি খোঁচা আসছে তৃণমূলের দিক থেকেও। কিন্তু এই বিষয়ে কী বলছেন কুণাল ঘোষ?‌ সোশাল সাইটে তাঁর লেখা থেকেই জেনে নেওয়া যাক।)‌

kunal
সিপিএম তাদের সাংসদ ঋতব্রত বন্দোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে 3 মাসের সাসপেনশন ও তদন্ত কমিশন ঘোষণা করায় চারদিকে বিভিন্ন মন্তব্য দেখছি। অনেকে সিপিএমকে নানা ভাষায় আক্রমণ, কটাক্ষ করছেন। আমার সংক্ষিপ্ত বক্তব্য-
1) সিপিএম নিজেরা সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলেই তো আক্রমণের সুযোগ পাচ্ছেন। সিপিএম ব্যবস্থা না নিলে এইসব পোস্ট করার সুযোগ পেতেন? সিপিএম যখন নিজেরা পদক্ষেপ নিচ্ছে, তখন তাদের আক্রমণের মানে কী ??? বরং, অভিযোগ এলে তদন্ত করা হয়, এখনও, পার্টির এই দুর্দিনেও, এটা সিপিএম দেখালো।
2) ঋতব্রতর বিরুদ্ধে তার দল তদন্ত করছে। দল নিজেরাই জানিয়েছে। তাহলে সবটা না জেনে নানা কথা বলে লাভ কী??? ঋতকে নারদে ক্যামেরার সামনে ঘটনার মত পর্দায় দেখা যায় নি। কিছু অভিযোগ দল পেয়েছে, তদন্ত করছে, তারাই জানিয়েছে। তাহলে হঠাৎ পৈশাচিক আনন্দে চিমটি কাটা আলোচনার দরকার আছে কি???


3) এই যে আমি, শুনেছিলাম আমার দল তৃণমূল নাকি আমায় শোকজ করেছে, সাসপেন্ড করেছে। আজও কোনও চিঠি পেলাম না। উল্টে দল সদস্যপদের চাঁদা নিয়েই চলেছে। সিপিএম তো সাসপেনশন ঘোষণার সঙ্গে তদন্ত কমিশনও ঘোষণা করেছে। কিন্তু, আমার ক্ষেত্রে চিঠি কই? তদন্ত কই? বারবার বলছি, এখনও বলছি, সারদাসহ আনুসঙ্গিক ইস্যুতে দলে অভ্যন্তরীন তদন্ত কমিশন দরকার। আমি সেই তদন্তের মুখোমুখি হতে রাজি। কেন দল তদন্ত কমিশন করেনি বা করছে না? তার বদলে কয়েকজনকে আড়াল করতে পুলিশকে কুৎসিতভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে। এখনও চরম প্রতিহিংসাপরায়ণভাবে পুলিশকে লেলিয়ে দেওয়া হচ্ছে। আমি নিরাপদ নই। বিপন্মুক্ত নই। পুলিশি কাগজপত্রে আইনের ঘেরাটোপে বন্দি। কিন্তু আমি আমার বক্তব্য থেকে এক চুল সরব না। আমি আবার বলছি, সিপিএম তার সাংসদের বিরুদ্ধে দলে তদন্ত কমিশন করতে পারে, কিন্তু আমার দল তৃণমূল তা পারে না কেন? করে না কেন?
4) দলে কিছু কথা এল, সিপিএম ব্যবস্থা নিল। কিন্তু, সারদা, রোজভ্যালি, আইকোর, অ্যালকেমিস্ট, নারদ – এসবে এত অভিযোগ, তবু দল ব্যবস্থা নিল না !!! আমার যে সাসপেনশনের কথা বলা হয়, সেটা সারদার জন্য না, তথাকথিত দলবিরোধী বিবৃতির জন্য। এখানে টাকা নেওয়ার ছবি থাকলেও নেতা দূরের কথা, আইপিএস মির্জার বিরুদ্ধেও এখনও ব্যবস্থা নেওয়া হয় না। আজ, শুক্রবারও প্রশাসনিক বৈঠকের রিয়েলিটি শোতে মুখ্যমন্ত্রী যখন দুর্নীতির বিরুদ্ধে নাকি কড়া বার্তা দিচ্ছেন, তখন মঞ্চে তাঁর পাশে নারদ, পিছনে নারদ, অন্যপাশে সারদার উৎসাহদাতা মুখ!!!!!
আমি সিপিএম সমর্থক নই। 2011সালে পরিবর্তনের লড়াইতে বোধহয় আমারও কিছু ভূমিকা ছিল। সেই আমি অান্তরিক অনুভূতি থেকে বলছি, তৃণমূল যখন দলে মারাত্মক অভিযোগের ক্ষেত্রে ব্যবস্থা নিচ্ছে না, দলে তদন্ত করতেও ভয় পাচ্ছে, তখন সিপিএম নিজেদের সাংসদের বিরুদ্ধে যে ব্যবস্থাই নিক, তা নিয়ে সমালোচনা বা টিপ্পনীর কোনও নৈতিক অধিকার শাসকশিবিরের নেই।
পরিশেষে আবার বলি, তৃণমূল দলীয় তদন্ত কমিশন করুক। আমার বিরুদ্ধে তদন্ত হোক। আমাকেও কথা বলতে দেওয়া হোক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × one =

You might also like...

shimultala2

শীতের ছোট্ট ছুটিতে শিমূলতলা

Read More →
game of thrones season 7 episode 1 game of thrones season 7 watch online game of thrones season 7 live streaming game of thrones season 7 episode 1 voot voot apk uc news vidmate download flipkart flipkart flipkart apk cartoon hd cartoonhd cartoon hd apk cartoon hd download 9Apps 9Apps apk