Loading...
You are here:  Home  >  জেলার বার্তা  >  উত্তর বঙ্গ  >  Current Article

ধন্যবাদ পর্যটন দপ্তর

By   /  June 11, 2017  /  No Comments

সুমিত চক্রবর্তী

তখনও অশান্ত হয়নি পাহাড়। ঘুরে এলাম সিকিম থেকে। না, পাহাড় অশান্ত হতে পারে, সেই আশঙ্কায় সিকিম গিয়েছিলাম, এমন নয়। অনেক আগে থেকেই ঠিক ছিল, সিকিমে যাব। এর আগেও সিকিমে গেছি। আমাদের রাজ্যের পাহাড়েও গেছি। নানা সমস্যার মুখোমুখি হয়েছি। কিন্তু এবার একটা ব্যাপার দেখে খুব ভাল লাগল। মনে হল, পর্যটকদের জানানো দরকার। তাই বেঙ্গল টাইমসের মাধ্যমে তা তুলে ধরছি।

 

এর আগেও যতবার এনজিপি স্টেশনে নেমেছি বা শিলিগুড়ি জংশনে গিয়েছি, গাড়ির ড্রাইভাররা একেকরকম দর হেঁকেছেন। সুযোগ বুঝে রেট বাড়িয়ে দিয়েছেন। কিন্তু এবার একটা ব্যতিক্রমী জিনিস দেখলাম। অন্তত গাড়িভাড়ার জন্য পর্যটকদের হয়রানির শিকার হতে হয়নি। এনজেপি স্টেশনের বাইরে প্রি পেইড ট্যাক্সি বুথ। কোথাকার কত ভাড়া, তা নির্দিষ্ট করা আছে। আগেও এরকম একটা রেটচার্ট ছিল। কিন্তু তেমন তদারকি ছিল না। কিন্তু এবার নজরদারি অনেক বেশি। কেউ বেশি ভাড়া নিচ্ছেন কিনা, বারবার খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। বেশি ভাড়া নিলে সঙ্গে সঙ্গে জানাতে বলা হচ্ছে। এমনকী স্টেশন চত্বর থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পরেও পুলিশ কর্মীরা জিজ্ঞেস করছেন, ঠিকঠাক ভাড়া নেওয়া হল কিনা।

tourism4

ভাড়ার রেটটাও বেশ কম। অন্তত গাড়িওয়ালারা যে রেট হাঁকেন, সেই তুলনায় কম তো বটেই (‌যদিও এটা ২০০৮ সালের রেট। চালকদের পক্ষ থেকে দাবি রয়েছে বাড়ানোর)‌। ছোট গাড়ি ও বড় গাড়ির ক্ষেত্রে রেট আলাদা। এই ফাঁকে সেই রেটকার্ডে একটু চোখ বুলিয়ে নেওয়া যাক। দার্জিলিং ১৭৬০/‌১৯৬০ টাকা। কালিম্পং ১৪১০/‌১৫০০। গ্যাংটক ২০৮০/‌২২২০। রাবাংলা ২৪১০/‌২৫৭০। লাভা ১৮১০/‌১৯৩০। এরকম বিভিন্ন জায়গার রেটকার্ড তৈরি আছে।

গাড়িওয়ালাদের একটা ক্ষোভও আছে। তাঁদের দাবি, এটা পুরনো রেটকার্ড। সবকিছুর দাম বেড়েছে। তাই এটা রিভিউ করা দরকার। শুনলাম, এই নিয়ে গাড়ি মালিকদের সঙ্গে সরকারি প্রতিনিধিরা নতুন করে বসবেন। নতুন রেট কার্ড তৈরি হবে। আরও একটা দাবির কথা শুনলাম। গাড়িচালকদের যুক্তি, হোটেল যদি ভিড় বুঝে ইচ্ছেমতো ভাড়া চাইতে পারে, তাহলে আমরা কেন চাইতে পারি না। প্রথম দাবিটার যুক্তি আছে। দ্বিতীয়টা কিছুটা গাজোয়ারিই মনে হল। অন্য কেউ নিয়ম মানছে না বলে আমিও মানব না, এটা তো যুক্তি হতে পারে না।

তবে সবমিলিয়ে ব্যবস্থাটা বেশ ভাল। এর আরও ভাল প্রচার দরকার। সতর্ক নজরদারি যেমন চলছে, চলুক। এটা যেন বন্ধ না হয়ে যায়। কোনও চালকের বিরুদ্ধে অভিযোগ থাকলে যেন যথাযথ ব্যস্থা নেওয়া হয়। এতে পর্যটকদের আস্থা বাড়বে। গাড়িচালকদের কাছেও বার্তা যাক, পর্যটকদের হয়রানি করা চলবে না। একজনের শাস্তি হলে অন্যরাও সতর্ক থাকবেন।

সরকারি নানা ব্যবস্থার আমরা সমালোচনা করে থাকি। কিন্তু যেগুলো ভাল দিক, সেগুলোর প্রশংসা করি না। আমার মনে হয়, খারাপ কাজের সমালোচনা হওয়া জরুরি। পাশাপাশি ভাল কাজের তারিফ করাটাও জরুরি। অন্তত এই ব্যাপারে পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেবকে একটা ধন্যবাদ দেওয়াই যায়।

(এটি ওপেন ফোরাম। পাঠকদের মুক্তমঞ্চ। আপনিও আপনার অনুভূতির কথা লিখে জানাতে পারেন। বেড়াতে গিয়ে ভাল–‌মন্দ দুরকম অভিজ্ঞতার কথাই লিখতে পারেন। ধন্যবাদ দিতে পারেন। পরামর্শ দিতে পারেন। গঠনমূলক সমালোচনাও করতে পারেন। লেখা পাঠানোর ঠিকানা:‌ bengaltimes.in@gmail.com)

tourism2

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one × 4 =

You might also like...

mira kumar

মীরা কুমার কখনই বিকল্প নন

Read More →
game of thrones season 7 episode 1 game of thrones season 7 watch online game of thrones season 7 live streaming game of thrones season 7 episode 1 voot voot apk uc news vidmate download flipkart flipkart flipkart apk cartoon hd cartoonhd cartoon hd apk cartoon hd download 9Apps 9Apps apk