Loading...
You are here:  Home  >  ওপেন ফোরাম  >  Current Article

বেচারা মধুসূদন!‌ আগে চলে গিয়ে বেঁচে গেছেন

By   /  June 29, 2017  /  No Comments

নন্দ ঘোষের কড়চা

nanda ghosh logo

যে যে মানুষের জন্য বাঙালির সাড়ে সর্বনাশ হয়েছে, তাঁদের মধ্যে প্রধান হলেন এই মধুসূদন। এঁর দোষের লিস্টিটা এত বড় যে কোথা থেকে শুরু করব বুঝতে পারছি না। প্রথমত ইনি কুলাঙ্গার। হিন্দু কুলকলঙ্ক। আহা বাপমা কত ভালবেসে নাম রেখেছিল মধুসূদন! মানে শ্রী হরি। কিন্তু প্রতি পদক্ষেপে সেই হরির পিছনে লাগল। ধর্ম ছেড়ে কেরেস্তান হল। কেন হল? আরে হবে না? ইংরেজি পড়ার এই হল কুফল। ওর বাপ যদি কলেজে ভর্তি না করে টোল চতুষ্পাঠীতে পাঠাত, তাহলে ও বৈদিক যুগে প্লাস্টিক সার্জারি, উপনিষদে এরোপ্লেন প্রভৃতি জানতে পারত। তখন ও বুঝতে পারত হিন্দু ধর্ম, পশ্চিমা ধর্মর থেকেও আধুনিক। অনেকে আবার বলে, রেভারেণ্ড কৃষ্ণমোহন বাঁড়ুজ্জে মেয়ে দেবকীকে বে করার জন্য ব্যাটা কেরেস্তান হয়েছি। এটা অবশ্য খারাপ আইডিয়া ছিল না। দেবকীকে বে করে তারপর স্বামী-স্ত্রী একসঙ্গে প্রায়শ্চিত্ত করে আবার হিন্দু হলে বেশ একটা লাভ জেহাদ হত। কিন্তু ওর মোটা মাথায় ব্যাপারটা আসেইনি। ও বোঝেইনি যে ভিন ধর্মে বিয়ে মানে ভালোবাসা নয় জেহাদ। দেবকির সঙ্গে বিয়ে হল না। এবার তাহলে গোমাতার গু-মুত খেয়ে নিজের ধর্মে ফিরে আয়। কিন্তু না সেটাও এল না। উল্টে পরম পূজনীয় রামচন্দরের নামে কেচ্ছা করে একটা কাব্য লিখল। ভাবুন একবার ভাবুন! যার নাম মধুসূদন সে লিখছে রামের বিরুদ্ধে। কী সব ভাষা! রাঘব ভিখারি! শৃগাল! সাপ! বামন! আজকের দিনে হলে ফেসবুকে ওর নামে যা কেচ্ছা করতাম না!

madhu sudan3
আচ্ছা বলুন তো, কেচ্ছার প্রথম পয়েন্ট কী হত? পারলেন না তো! আচ্ছা আমি বলে দিচ্ছি। আরে মশাই, ব্যাটার দুটো বে ছিল। রেবেকা আর হেনরিয়েটা। সেটাই আসল পয়েন্ট। অমর্ত্য সেনের সঙ্গে যুক্তি না পেরে আমরা যেমন তাঁর কটা বউ তাই নিয়ে প্যাঁচাল করি, মধুসূদনকে নিয়েও তাই করতাম।
তারপরে আসুন কবিতার ভাষা। কী ভাষা রে মাইরি! তুলসিদাসের রামচরিতমানস কেমন গড়গড় করে বুঝতে পারি। আর এ ব্যাটা? নিদাঘে যেমতি ফুলশূন্য বনস্থলী,… ইরম্মদে ধাঁধি বিশ্ব… কাকোদর সদা নম্র শির… এগুলো ভাষা? এগুলো ছন্দ? সিলেবাস থেকে এইসব আপদ দূর করলে বাংলা ভাষার বোঝা একটু কমবে, তখন হিন্দি ভাষাটাকে আর একটু গুরুত্ব দিয়ে শেখানো যাবে।
হ্যাঁ, ব্রজাঙ্গনা নামে কী একটা যেন লিখেছিল। সেটাতে ব্রজ নারীদের কথা আছে। কিন্তু সিলেবাসে ছিল না বলে পড়িনি। পড়ার দরকারই হয় না। না পড়েই আমরা সব বুঝতে পারি। এই যে গরুর মাংস খাওয়া মহাপাপ, এটা জানার জন্য কি আমরা বৈদিক যুগের খাদ্য তালিকা নিয়ে পড়াশোনা করতে হয়েছে?
গরুর মাংস বলতে একটা কথা মনে পড়ল। বুড়ো শালিকের ঘারে রোঁ বলে একটা নাটক লিখেছিল। তাতে আছে, এক হিন্দু, মুসলমান মেয়েদের পিছনে ছোঁকছোঁক করে মুসলমান মেয়ের ফুসলে মন্দিরের ভিতরে নিয়ে যায়। ভাবুন একবার ভাবুন! আজকের দিনে জন্মালে তো ত্রিশুলে কনডম পরিয়ে দিত।
তারপরে ভাবুন, নীলদর্পণের বঙ্গানুবাদ। কে করল? ওই ব্যাটা করল। আমাদের অশেষ সৌভাগ্য যে ব্যাটা মরে গেছে, নইলে এই যে আজকের দিনে কৃষকরা ফ্যাশন করে আত্মহত্যা করছে, তাই নিয়েও কিছু একটা লিখে বসত। তখন ঠ্যালা সামলান দায় হত।
এখানেই শেষ নয়। আমরা জানি মুঘল আমল খুব খারাপ ছিল। ইংরেজরা এসে দেশ উদ্ধার করেছিল। কিন্তু এই উজবুকটা মাদ্রাজে থাকাকালীন লিখেছিল ইংরেজ আমলের থেকে মুঘল আমল ভাল ছিল। রাধেকৃষ্ণ, রাধেকৃষ্ণ বলে কিনা মুঘল আমল ভালো ছিল! উপায় থাকলে ব্যাটাকে ঘাড়ধাক্কা দিয়ে, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ কোথাও একটা পাঠিয়ে দিতাম।
আজ ২৯ জুন মুখ্যুটার মৃত্যুদিন। চল তো সবাই শাবল, হাতুড়ি নিয়ে। মল্লিকবাজার কবরখানায় ব্যাটার সমাধিটাকে বাবরি মসজিদের মতো ভেঙে দিই। রামকে খারাপ বলা, হিঁদুদের খারাপ বলার মজাটা টের পাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

7 + two =

You might also like...

radio3

না বোঝা সেই মহালয়া

Read More →
game of thrones season 7 episode 1 game of thrones season 7 watch online game of thrones season 7 live streaming game of thrones season 7 episode 1 voot voot apk uc news vidmate download flipkart flipkart flipkart apk cartoon hd cartoonhd cartoon hd apk cartoon hd download 9Apps 9Apps apk