Loading...
You are here:  Home  >  অন্যান্য  >  অর্থনীতি  >  Current Article

মাসের শুরুতেই সব মিটিয়ে দিন‌

By   /  February 2, 2017  /  No Comments

বেঙ্গল টাইমস প্রতিবেদন:‌ অরুণ জেটলির বাজেট হয়ে গেল। এবার অমিত মিত্রর বাকি। পাড়ায়, চায়ের দোকানে, বাসে, অফিসে নানা আলোচনা। কী করা উচিত ছিল, এমন নানা পরামর্শ। কিন্তু আপনার সংসারের কী হবে?‌ আপনিই আপনার সংসারের অরুণ জেটলি। আপনিই আপনার সংসারের অমিত মিত্র। সারা মাসটা কীভাবে চালাবেন, ভেবে দেখেছেন?‌
টেলিফোনের বিল জমা দিতে মাঝে মাঝেই কি আপনার দেরি হয়ে যায়?‌ শেষে লেটফাইন দিয়ে জমা দিতে হয়?‌ ইলেকট্রিক বিলের ক্ষেত্রেও কি এমনটা ঘটে?‌ নির্ধারিত সময়ে না দেওয়ায় বাড়িতে নোটিশ আসে?‌ নোটিশ পেয়ে আপনি বিল দিতে ছুটে যান?‌ ভাড়া বাড়িতে থাকেন?‌ বাড়িওয়ালাকে টাকা দেব দেব করেও দেওয়া হয়নি?‌ ওপর তলা থেকে বাড়িওয়ালা একদিন ভাড়াটা চেয়ে বসলেন। তখন কিছুটা লজ্জিত হয়ে আপনি ভাড়া দিলেন।

এমনটা আমাদের অনেকের সঙ্গেই হয়ে থাকে। যদি হাতে টাকা না থাকে, তাহলে না হয় একটা যুক্তি আছে। কিন্তু অধিকাংশক্ষেত্রেই এটা হয় গড়িমসি থেকে। হাতে টাকা আছে। দেওয়ার সদিচ্ছাও আছে। কিন্তু আজ দেব, কাল দেব, এই ভেবে দেরি হয়ে যায়। তার ফলে, নোটিশ এসে যায়, বাড়িওয়ালা তাগাদা দেয়, কাজের লোকও মনে করিয়ে দেয়, মাইনে বাকি। অথচ, চাইলেই এমন পরিস্থিতি আমরা এড়াতে পারি। মাসের শুরুতেই সব বকেয়া মিটিয়ে দিতে পারি। তাহলে কিছুটা মানসিক তৃপ্তি পাবেন। এই ব্যাপারে কয়েকটি জরুরি পরামর্শ:‌

১)‌ মাসের শেষেই ভেবে নিন, কোথায় কোথায় টাকা দিতে হবে। একটা তালিকা তৈরি করে নিন।
২)‌ সবগুলো একদিনে মেটাতে পারবেন না। কোনটা এক তারিখ, কোনটা দু তারিখে দেবেন, আগাম ভেবে নিন।
৩)‌ চেষ্টা করুন, প্রথম দুদিনের মধ্যে (‌বড়জোর তিনদিন)‌ সব বকেয়া মিটিয়ে ফেলার। যাতে আপনার কাছে কাউকে চাইতে না হয়।
৪)‌ কাজের লোক, বাড়িওয়ালা, ড্রাইভার, লন্ড্রি, পাড়ার দোকান, কাগজ বিক্রেতা, কেবল অপারেটর। কোথায় কত হতে পারে, একটা আন্দাজ আছে। যত দ্রুত সম্ভব, চুকিয়ে দিন। এতে তাঁদের কাছে আপনার মর্যাদা অনেকটা বাড়বে। তাঁদের পাওনা টাকা তাঁদের চাইতে হবে কেন?‌

Pie chart on a stock chart with a budget
৫)‌ হয়ত আপনার মাইনে একটু দেরিতে হয়। চেক ক্লিয়ার হতে হতে সাত–‌আট তারিখ হয়ে যায়। কিন্তু যাঁরা আপনার কাছ থেকে টাকা পান, তাঁদের এতদিন অপেক্ষা করাবেন কেন?‌ দরকার হলে জমা টাকা থেকেই পেমেন্ট ক্লিয়ার করে রাখুন। এক সপ্তাহ পর তো দিতেই হত। এক সপ্তাহ আগেই নয় কেন?‌ এতে তাঁরাও বুঝবেন, আপনার মাইনে না হওয়া সত্ত্বেও আপনি তাঁদের সমস্যা বোঝেন। আর দশজনের থেকে আপনাকে একটু হলেও আলাদা চোখে দেখবেন।
৬)‌ ইলেকট্রিক বিল। সাধারণত তিন মাসের বিল আসে। যদি একসঙ্গে দেওয়া যায়, তাহলে তো ভালই। যদি নাও যায়, মাসের শুরুতেই দিয়ে রাখুন।
৭)‌ টেলিফোন, নেট। বিল একেকজনের ক্ষেত্রে একেক সময়ে আসে। কারও ক্ষেত্রে হয়ত কুড়ি তারিখে দিতে হয়, কারও ক্ষেত্রে পনেরো তারিখে। মাঝখানে দিতে যাবেন কেন?‌ মাসের শুরুতেই দিয়ে রাখুন। যদি বিল না পেয়ে থাকেন, দরকার হলে অ্যাডভান্স দিয়ে রাখুন। পরে অ্যাডজাস্ট হয়ে যাবে। বারবার বিল চেয়ে ফোন, এস এম এস আসবে, সেটা কি ভাল লাগবে?‌
৮)‌ ক্রেডিট কার্ড। মস্তবড় এক ফাঁদ। এড়িয়ে চলতে পারলে তো ভালই। যদি একান্তই এড়াতে না পারেন, চেষ্টা করুন, মাসের শুরুতেই বিল মিটিয়ে দিতে। নইলে ফাইন বাড়তে বাড়তে ভয়াবহ চেহারা নেবে। আপনার মানসিক দুশ্চিন্তাও বাড়বে।
৯)‌ কাকে কত দিতে হবে, সারা মাস ধরেই একটা দুশ্চিন্তা থাকে। এই দুশ্চিন্তায় অএক জরুরি কাজ আটকে যায়। মেজাজ খিটখিটে হয়ে যায়। মাসের দু–‌তিন দিনের মধ্যে যদি সেই দুশ্চিন্তা ঝেড়ে ফেলতে পারেন, মন্দ কী ?‌ বাকি ২৮ দিন আপনি বিন্দাস থাকুন।
১০)‌ যুধিষ্ঠিরকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, সবথেকে সুখী মানুষ কে?‌ ধর্মরাজ উত্তর দিয়েছিলেন, যার কোনও ঋণ নেই, সেই সবথেকে খুশি। দৈনন্দিন জীবনে আমাদের সবাইকেই কম–‌বেশি ঋণের জালে জড়াতেই হয়। সেখান থেকে যত তাড়াতাড়ি মুক্তি পান, সেটাই ভাল। নিজের গড়িমসি ভাব কাটিয়ে এই মাস থেকেই একবার চেষ্টা করে দেখুন তো। চেষ্টা করুন, দু–‌তিনদিনের মধ্যে যার যা বকেয়া, মিটিয়ে দিতে। তারপর দেখুন, অনেক শান্তি পাবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × three =

You might also like...

taxi

হাওড়া স্টেশন নিয়ে প্রশাসনের হেলদোল নেই

Read More →
game of thrones season 7 episode 1 game of thrones season 7 watch online game of thrones season 7 live streaming game of thrones season 7 episode 1 voot voot apk uc news vidmate download flipkart flipkart flipkart apk cartoon hd cartoonhd cartoon hd apk cartoon hd download 9Apps 9Apps apk